ভিশন রাইস কুকারের দাম

ভিশন রাইস কুকারের দাম কত ২০২৪

ভিশন রাইস কুকারের দাম কত ২০২৪: রাইস কুকার মূলত প্রতিটি রান্নাঘরের জন্য অপরিহার্য একটি গ্যাজেট। কারণ কী? এটা চাল সেদ্ধ করার প্রক্রিয়াকে অনেক বেশি সরল ও আরামদায়ক করে তোলে। যদি আপনি এখনো রাইস কুকার ব্যবহার করেননি, তবে আজকে আপনার শেখার কিছু আছে।

রাইস কুকার চালানো খুবই সহজ। প্রথমে, চাল ভালো করে পরিষ্কার করুন। এরপর, চালটি রাইস কুকারের পাত্রে রাখুন এবং উপযুক্ত পরিমাণে পানি যোগ করুন। সাধারনভাবে, এক কাপ চালের জন্য দুই কাপ পানি লাগে, কিন্তু এটি চালের প্রকার ভেদে ভিন্ন হতে পারে।

এরপরে, রাইস কুকারের ঢাকনা লাগিয়ে সুইচ চালু করুন। এটাই যেন এক জাদু। রাইস কুকার নিজে থেকে চাল সেদ্ধ করে এবং চাল পুরোপুরি রান্না হয়ে গেলে অটোমেটিক ভাবে উষ্ণ রাখার মোডে চলে যায়, যাতে চাল সবসময় গরম থাকে। এই বৈশিষ্ট্য বিশেষ করে উপকারী হয় যখন আপনি সঙ্গে সঙ্গে খেতে প্রস্তুত না থাকেন।

বর্তমানে দেশের মানুষ ই রাইস কুকার ব্যবহার করে থাকে হোক সে শহরের কিংবা গ্রামের । প্রতিটি পরিবারের নিত্য দিনের একটি প্রয়োজনীয় গৃহস্থলীয় ইলেকট্রনিক্স পন্য। বাংলাদেশে বিভিন্ন কোম্পানি তাদের রাইসকুকার নিয়ে এসেছে। তবে ভাল মানের রাইস কুকার গুলোর মধ্যে ভিশন, মিয়াকো, কিয়াম , ফিলিপ, ওয়ালটন অন্যতম । তবে এখানে আজকে ভিশনের রাইস কুকার সম্পর্কে আলোচনা করব।

ভিশন রাইস কুকারের দাম

দেশে যেমন ভিশনের ফ্রিজ, টিভি, এসি ইত্যাদির দাম বৃদ্ধি পেয়েছে তেমনি রাইস কুকারের মূল্য বেড়েছে। সাধারনত একটি ভাল মানের রাইস কুকারের দাম ২৭০০ টাকা থেকে ৩৩০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাবে। তবে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কোম্পানির অফার থাকে সেটা অবশ্যই যাছাই করে নিবেন। আপনার স্বল্প বাজেটের মধ্যে ভিশনের একটি রাইস কুকার কিনতে পারবেন।

রাইস কুকারে পোলাও রান্নার নিয়মঃ পোলাও ভাত কুকারে রান্না করতে হলে, প্রথমে ভাতটি ধুয়ে নিয়ে কিছুক্ষণ পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। এরপরে রাইস কুকারের ঢাকনা খোলা অবস্থায় ঘি ঢেলে কুকারটি চালু করতে হবে। তেল গরম হলে পোলাওর চাল দিয়ে রাইস কুকারের চামচ দিয়ে আস্তে আস্তে নাড়তে হবে। চালটি হালকা ভেজে পরিমাণ মতো পানি দিতে হবে। এখানে চালের পরিমাণের দ্বিগুণের বেশি পানি দিতে হতে পারে। তারপরে রাইস কুকারের ঢাকনা বন্ধ করে দিতে হবে। রান্না হয়ে গেলে রাইস কুকারের ওয়ার্ম চলে আসবে, এবং এটি খোলা যাবে। এবার চাইলে রাইস কুকার থেকে পোলাও বাহির করে নিতে হবে।

রাইস কুকারে ভাত রান্নার নিয়মঃ প্রথমে চাল ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে এবং পানিতে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখতে হবে। তারপরে রাইস কুকারের ঢাকনা খোলা অবস্থায় চাল দিয়ে দিতে হবে। চাল দেওয়া হয়ে গেলে রাইস কুকারের ঢাকনাটি বন্ধ করে দিতে হবে এবং সুইচ অন করে দিতে হবে। তাহলে ২৫-৩০ মিনিটের মধ্যে ভাত রান্না হয়ে যাবে। অনেকেই রাইস কুকারে চাল ও পানির অনুপাত চাল যে পরিমাণে তার দ্বিগুণ পানি দিতে হবে।

রাইস কুকার ব্যবহার করে মাছ রান্না করার পদ্ধতি: মাছ রান্না করার জন্য রাইস কুকারে, প্রথমে কিছু টুকরা মাছ ধুয়ে নেওয়া হবে। এরপরে, মাছে হলুদ এবং মরিচের গুঁড়া মাখানো হবে এবং এটি কিছুটা সময়ের জন্য রাখতে হবে। পরে, তেল এবং লবণ যোগ করে মাখিয়ে রাইস কুকারে রেখে দিতে হবে। নির্দিষ্ট সময়ের পর, মাছ ঠিক মতো রান্না হয়ে আসলে ঢাকনা খোলে কিছু কাঁচা মরিচ এবং ধনেপাতা দিয়ে সাজানো হবে।

রাইস কুকার ব্যবহার করে বিভিন্ন প্রকারের সবজি সেদ্ধ করার নিয়মটি এমনভাবে রয়েছে: রাইস কুকারের সাথে একটি স্টিমার যোগ করা থাকে, যা একটি ঝাকার মতো কাজ করে। এই ঝাকা দিয়ে আপনি যেকোনো ধরণের সবজি খুব সহজেই সিদ্ধ করতে পারবেন। প্রথমে সবজি টুকরা টুকরা করে কেটে নিতে হবে এবং তারপরে ঝাকার উপরে দিয়ে রাইস কুকার চালু করে সিদ্ধ করতে হবে।

রাইস কুকারে ভাত পুড়ে যায় কেন বা কি কারণে এই সমস্যাটার সৃষ্টি হয়ে থাকে অনেকেই বুঝে উঠতে পারে না। যদি অতিরিক্ত সময় ধরে রাইস কুকারে রান্না বসিয়ে অর্থাৎ নির্দিষ্ট সময় পার হওয়ার পরও যদি ভাত না নামিয়ে থাকি তাহলে অনেক ক্ষেত্রে ভাত পুড়ে যেতে পারে। তাছাড়া অনেক ক্ষেত্রে কম পানি দেওয়ার কারণেও ভাত পুড়ে যেতে পারে। আশা করি রাইস কুকারে কিভাবে ভাত রান্না করে এই বিষয়ে মোটামুটি ধারণা পেয়েছি।

ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনের দাম 2024 ভিশন ব্লেন্ডার দাম ২০২৪কিয়াম রাইস কুকারের দাম ২০২৪

*** যে কোন রাইস কুকার ব্যবহারের সাবধানতা অবশ্যই অবলম্বন করবেন***

রাইস কুকারে চাল ও পানির অনুপাত

রাইস কুকারে রান্না করার সময় মনে রাখবেন, খাদ্য প্রণালীর দ্বিগুণ পরিমাণে পানি ব্যবহার করতে হবে। অর্থাৎ, যদি আপনি ভাত রান্না করতে চান, তাহলে আধা কেজি চাউলের জন্য এক কেজি পরিমাণ পানি ব্যবহার করতে হবে।

ভিশন রাইস কুকারের বর্তমান বাজার দাম ২০২৪ ও ফিচারসমূহ:

প্রতিটি পন্যের কোয়ালিটি প্রায় এক হওয়া সত্ত্বেও টাকার পরিমান ও ফিচারের ভিন্নতার কারনে একটা ভ্যারিয়েশন হতে পারে।

ভিশন রাইস কুকার ১.৮ প্রাইস ইন বাংলাদেশ

রাইস কুকারের দাম : ২৬৯১ টাকা।  প্রডাক্ট কোড: ৮৭৩১৪৩।  ক্যাপাসিটি: ১.৮ লিটার

  • মডেলের নাম : VISION Rice Cooker 1.8 L REL-40-06 SS Red (Double Pot)
  • অভ্যন্তরীণ পাত্র: ডাবল পাত্র (একটি এসএস পাত্র এবং অপরটি অ্যালুমিনিয়ামের)
  • প্লাস্টিকের হ্যান্ডেল সহ অ্যালুমিনিয়াম স্টিমার
  • পাওয়ার প্রয়োজন : ২২০ ভোল্ট এবং- ৫০ হার্জ, ৭০০ওয়াট।
  • ২ হোল বিশিষ্ট ৬-৬.৫ মিমি এর প্লাস্টিক হ্যান্ডেল গ্লাস ঢাকনা।
  • এতে রয়েছে ম্যাগনেটিক সুইচ এবং থার্মোস্ট্যাট সম্পূর্ণ সহ এসএস বডি।
  • Al/ প্লাস্টিকের হ্যান্ডেল সহ স্টেইনলেস স্টীল স্টিমার।
  • কুকরটির অন্তর্নির্মিত থার্মোস্ট্যাট একটি সুনির্দিষ্ট এবং অভিন্ন স্তরে তাপ বজায় রাখে ৭০০ ওয়াট শক্তি যা ১৫-২০ মিনিটে ভাত রান্নার জন্য যথেষ্ট সহজ পরিষ্কার এবং নোংরা বিরোধী জন্য আবরণ রয়েছে।
  •  সঙ্গে গরম উপাদান ১.২ মিমি প্রকৃত নন-স্টিক আবরণ ভিতরের পাত্র।
  •  বেস বোর্ড- সিলভার |
  •  উষ্ণ মোডে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ক্রিয়া কাজ করে।
  • কুকারটির ওয়ারেন্টি : ১ বছর
  • ফ্রি সার্ভিসিং ৬ মাস।

ভিশন রাইস কুকার ৩ লিটার প্রাইস ইন বাংলাদেশ

VISION Rice Cooker 3.0 Ltr 100 SS Red

রাইস কুকারের দাম : ৩৩০৩ টাকা।  প্রডাক্ট কোড: ৮৭৩১১২।  ক্যাপাসিটি: ৩ লিটার

  • মডেল : VISION Rice Cooker 3.0 Ltr 100 SS Red
  • এতে রয়েছে : এলইডি এনডিকেটর।
  • প্লাস্টিকের হ্যান্ডেল সহ অ্যালুমিনিয়াম স্টিমার
  • ডাবল ইনার পট।
  • লাল রংয়ের এসএস বড়ি।
  • চালু করার জন্য ওয়ান-বাটন।
  • নন-স্টিক দুই ধারে বেস্টিত হাই কোয়ালিটির পাত্র।
  • Rust মুক্ত বাহিরের অংশ।
  • পাওয়ার প্রয়োজন : ২২০ ভোল্ট এবং- ৫০ হার্জ, ৭০০ওয়াট।
  • ২ হোল বিশিষ্ট ৬-৬.৫ মিমি এর প্লাস্টিক হ্যান্ডেল গ্লাস ঢাকনা।
  • এতে রয়েছে ম্যাগনেটিক সুইচ এবং থার্মোস্ট্যাট সম্পূর্ণ সহ এসএস বডি।
  • Al/ প্লাস্টিকের হ্যান্ডেল সহ স্টেইনলেস স্টীল স্টিমার।
  • কুকরটির অন্তর্নির্মিত থার্মোস্ট্যাট একটি সুনির্দিষ্ট এবং অভিন্ন স্তরে তাপ বজায় রাখে ৭০০ ওয়াট শক্তি যা ১৫-২০ মিনিটে ভাত রান্নার জন্য যথেষ্ট সহজ পরিষ্কার এবং নোংরা বিরোধী জন্য আবরণ রয়েছে।
  •  বেস বোর্ড- সিলভার |
  •  উষ্ণ মোডে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ক্রিয়া কাজ করে।
  • কুকারটির ওয়ারেন্টি : ১ বছর
  • ফ্রি সার্ভিসিং ৬ মাস।

ভিশন রাইস কুকার ১.৮ প্রাইস ইন বাংলাদেশ

VISION Rice Cooker 1.8 L 40-06 SS Blue Double Pot

রাইস কুকারের দাম : ২৬৯১ টাকা।  প্রডাক্ট কোড: ৮৭৩২০৯।  ক্যাপাসিটি: ১.৮ লিটার

  • মডেলের নাম : VISION Rice Cooker 1.8 L 40-06 SS Blue Double Pot
  • অভ্যন্তরীণ পাত্র: ডাবল পাত্র (একটি এসএস পাত্র এবং অপরটি অ্যালুমিনিয়ামের)
  • প্লাস্টিকের হ্যান্ডেল সহ অ্যালুমিনিয়াম স্টিমার
  • পাওয়ার প্রয়োজন : ২২০ ভোল্ট এবং- ৫০ হার্জ, ৭০০ওয়াট।
  • ২ হোল বিশিষ্ট ৬-৬.৫ মিমি এর প্লাস্টিক হ্যান্ডেল গ্লাস ঢাকনা।
  • এতে রয়েছে ম্যাগনেটিক সুইচ এবং থার্মোস্ট্যাট সম্পূর্ণ সহ এসএস বডি।
  • Al/ প্লাস্টিকের হ্যান্ডেল সহ স্টেইনলেস স্টীল স্টিমার।
  • কুকরটির অন্তর্নির্মিত থার্মোস্ট্যাট একটি সুনির্দিষ্ট এবং অভিন্ন স্তরে তাপ বজায় রাখে ৭০০ ওয়াট শক্তি যা ১৫-২০ মিনিটে ভাত রান্নার জন্য যথেষ্ট সহজ পরিষ্কার এবং নোংরা বিরোধী জন্য আবরণ রয়েছে।
  •  সঙ্গে গরম উপাদান ১.২ মিমি প্রকৃত নন-স্টিক আবরণ ভিতরের পাত্র।
  •  বেস বোর্ড- সিলভার |
  •  উষ্ণ মোডে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ক্রিয়া কাজ করে।
  • কুকারটির ওয়ারেন্টি : ১ বছর
  • ফ্রি সার্ভিসিং ৬ মাস।

রাইস কুকারে বিদ্যুৎ খরচ কেমন

রাইস কুকার দিয়ে রান্না করায় গড়পড়তা রাইস কুকার গুলো ৭০০ ওয়াটের মোট ক্ষমতা প্রযুক্ত করে, এক ঘন্টা চালু থাকলে বিদ্যুৎ খরচ হবে 0.7 ইউনিট। ১০০০ ওয়াটের ক্ষমতা ব্যবহৃত হলে ১ ঘন্টা ব্যবহৃত হলে এক ইউনিট বিদ্যুৎ খরচ হবে। তবে এটা সকল ব্রান্ডের ক্ষেত্রে এক হয় না।

বাটারফ্লাই সেলাই মেশিনের দাম ২০২৪

শেষ কথাঃ দেশের প্রায় সকল জেলা/উপজেলায় ভিশন কোম্পানির শোরুম/আউটলেট রয়েছে। যেখান থেকে পাইকারি দামে ভিশনের রাইস কুকার ক্রয় করতে পারেন। আশা করছি এই পোস্ট টি আপনাদের  প্রকৃত দাম কত তা জানাতে পেরেছি এবং পন্যটি ক্রয়ের পূর্বে অবশ্যই বাজার যাছাই করবেন। 

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *