ওয়ালটন গ্যাসের চুলার দাম ২০২৪

ওয়ালটন গ্যাসের চুলার দাম ২০২৪

আপনি কি ওয়ালটন গ্যাসের চুলার দাম ২০২৪ জানতে চান? বর্তমানে রান্না করার জন্য বিশ্বব্যাপী গ্যাসের চুলা ব্যবহার করা হচ্ছে। এ কারণে এখন প্রায় সব বাড়ির জন্যে গ্যাসের চুলা হলো অত্যন্ত জরুরি ও অপরিহার্য জিনিস। বর্তমানে, ওয়ালটন, আরএফএল, মিয়াকো, গাজী এবং অনেক লোকাল ব্র্যান্ডের গ্যাসের চুলা পাওয়া যায়।

ওয়ালটনের গ্যাসের চুলার বৈশিষ্ট্য: এই গ্যাস চুলার বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো সেই স্বয়ংক্রিয় ইগনিশন সিস্টেম, যা অটোমেটিক গ্যাস চুলা হিসেবে পরিচিত করে। অটোমেটিক গ্যাস চুলার বাটনে চাপ দিলে, টিপ দিলে বা গাঁট ঘুরিয়ে গ্যাস বার্নার আগুন জ্বালানো যায় এই সিস্টেমে। এর ফলে আলাদা লাইটার বা ম্যাচস্টিক ব্যবহার করতে হয় না। স্বয়ংক্রিয় ইগনিশন সিস্টেমের জন্য এই গ্যাস চুলা অনেক নিরাপদ হতে পারে। বাংলাদেশে অটোমেটিক গ্যাস চুলাগুলো খুবই জনপ্রিয় হচ্ছে। এই চুলাগুলোতে সাধারণত এলপিজি বা ন্যাচারাল গ্যাস ব্যবহার করা হয় এবং এগুলি গ্যাসের ব্যবহার ও সংরক্ষণ করতে পারে।

ওয়ালটন ফ্রিজ দাম ২০২৪ওয়ালটন মনিটরের দাম ২০২৪ওয়ালটন গিজারের দাম ২০২৪ওয়ালটন ডিপ ফ্রিজের দাম 2024ওয়ালটন রুম হিটারের দাম ২০২৪ডাবল গ্যাসের চুলার দাম বাংলাদেশ ২০২৪

ওয়ালটন গ্যাসের চুলার দাম ২০২৪: চুলার ব্র্যান্ড, বার্নার সংখ্যা, প্যানেল, এবং মানের ভিত্তিতে দাম ভিন্ন ভিন্ন হয়। ১,০০০ টাকা থেকে ১,৫০০ টাকা পর্যন্ত বিভিন্ন ওয়ালটন গ্যাসের চুলা পাওয়া যায়। উন্নত মানের অটোমেটিক গ্যাসের চুলাগুলোর দাম ৩,০০০ টাকা থেকে ৫,০০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। তবে, ১০,০০০ টাকার মধ্যে আকর্ষণীয় গ্লাস প্যানেল সহ উন্নত মানের অটোমেটিক গ্যাসের চুলা পাওয়া যায়। আরো এক অপশন হলো ম্যানুয়াল গ্যাসের চুলাগুলো, যা কমদামে পাওয়া যায় বাংলাদেশে।

১। WGS-GSC20 (LPG) – বর্তমান মূল্য: ২,৪৫৫ টাকা।

ওয়ালটন গ্যাসের চুলার দাম ২০২৪
  • এ গ্যাসের চুলাটি মরিচা সুরক্ষার জন্য স্টেইনলেস স্টিলের বডি ফ্রেম দিয়ে তৈরি করা।
  • ০.৪ মিমি পুরুত্বের শক্তিশালী স্টেইনলেস স্টিলের বডি ফ্রেম।
  • চুলাটি মার্জিত & অনন্য ডিজাইনের টেম্পারড গ্লাস টপ প্যানেল দিয়ে গঠিত।
  • দ্রুত রান্নার জন্য বার্নার ডিজাইন করা চুলা।
  • ওয়ালটনের এই চুলাটি পুরু স্টেইনলেস স্টীল বার্নার সমর্থন বার দিয়ে গঠিত।
  • চুলাটি প্যান সাপোর্টে লকিং সিস্টেম যা রান্নার সময় দুর্ঘটনা প্রতিরোধ করতে সহায়তা করে।
  • এটি বার্নার এবং ইগনিটার সমন্বয় নীল শিখা নিশ্চিত করে।
  • কম গ্যাস খরচ করতে সহায়তা করে।
  • এ চুলাটি কাস্ট-আয়রন বার্নার ক্যাপ রয়েছে।
  • চুলাটি জিগজ্যাগ টাইপ ভিট্রিয়াস এনামেলড প্যান সমর্থন করে।
  • এটি স্বয়ংক্রিয় পাইজোইলেকট্রিক ইগনিশন যার 100% ইগনিশন হার।

২। WGS-GSC90 (LPG) – বর্তমান মূল্য: ২,৫৯০ টাকা।

ওয়ালটন গ্যাসের চুলার দাম ২০২৪
  • ওয়ালটনের এ চুুলাটি মরিচা সুরক্ষার জন্য স্টেইনলেস স্টিলের বডি ফ্রেম দিয়ে তৈরি।
  • চুলাটি শক্তিশালী স্টেইনলেস স্টিলের ০.৩৮ মিমি পুরুত্বের বডি ফ্রেম।
  • এটি মার্জিত & অনন্য ডিজাইনের টেম্পারড গ্লাস টপ প্যানেল দ্বারা গঠিত।
  • খুব দ্রুত রান্নার জন্য বার্নার ডিজাইন করা।
  • এই চুলাটি পুরু স্টেইনলেস স্টীল বার্নার সমর্থন বার দিয়ে গঠিত।
  • এটি উন্নত প্যান সাপোর্টে লকিং সিস্টেম যা রান্নার সময় দুর্ঘটনা প্রতিরোধ করতে সহায়তা করে।
  • চুলাটির বার্নার এবং ইগনিটার সমন্বয় নীল শিখা নিশ্চিত করে।
  • এটি অত্যন্ত কম গ্যাস খরচ করতে সহায়তা করে।
  • চুলাটিতে রয়েছে কাস্ট-আয়রন বার্নার ক্যাপ।
  • এছাড়াও এটি জিগজ্যাগ টাইপ ভিট্রিয়াস এনামেলড প্যান সমর্থন করে।
  • চুলাটি স্বয়ংক্রিয় পাইজোইলেকট্রিক ইগনিশন যার 100% ইগনিশন হার।

৩। WGS-SGC1 (LPG) – বর্তমান মূল্য;

ওয়ালটন গ্যাসের চুলার দাম ২০২৪
  • প্রতিটি ইগনিটারের জন্য ৫০,০০০ -৫৫,০০০ বার স্বয়ংক্রিয় ইগনিশন অটোমেটিক করে।
  • চুলাটি ০.৪ মিমি পুরুত্বের শক্তিশালী স্টেইনলেস স্টিলের বডি ফ্রেমের।

আপনি কি বই পড়তে ভালবাসেন? তাহলে আর দেরি কেন। ভিজিট করুন আর ডাউনলোড করুন পিডিএফ বই: পিডিএফ আর্কাইভ বিডি

গ্যাসের চুলা কেনার আগে কী কী দেখতে হবে?

বাংলাদেশে সর্বপ্রথমেই গ্যাসের চুলা কিনার আগে কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মনে রাখতে হবে। এখানে কিছু পয়েন্ট হলো:

বার্নারঃ গ্যাসের চুলার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো বার্নার। এটি আগুন জ্বলে যা, রান্না করার জন্য এবং অন্যান্য কাজের জন্য ব্যবহৃত হয়। উন্নত মানের বার্নার যোগ করা গুরুত্বপূর্ণ, যাতে গ্যাস সাশ্রয় হয়।

গ্যাস সাশ্রয়ঃ বর্তমানে এলপিজি ও এনজি গ্যাসের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাই একটি ভালো গ্যাস সাশ্রয়ী চুলা বাছাই করা গুরুত্বপূর্ণ। অটোমেটিক গ্যাস স্টোভ বেশি সাশ্রয়ী হয়ে থাকে।

প্যানেলঃ বিভিন্ন উপাদানের তৈরি প্যানেল সহ বিভিন্ন ডিজাইনের গ্যাস চুলা পাওয়া যায়, বাংলাদেশে গ্লাসের প্যানেল সহ চুলা জনপ্রিয়। রান্নাঘরের ভিতরের ডেকোরেশন এবং প্রয়োজনীয়তা মনে রাখতে হবে।

সাইজঃ বাংলাদেশের মানুষের চাহিদার অনুযায়ী বিভিন্ন সাইজের গ্যাস চুলা পাওয়া যায়, তাই রান্নাঘরের জায়গার মাধ্যমে চুলার সাইজ বেছে নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ।

বি: দ্র: আমরা সবসময় সঠিক তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করি, আমাদের সম্পর্কে আপনার মন্তব্য থাকলে অবশ্যই কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন।ধন্যবাদ

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *