ইয়ামাহা স্যালুটো বাংলাদেশ প্রাইস ২০২৩

ইয়ামাহা স্যালুটো বাংলাদেশ প্রাইস ২০২৪

ইয়ামাহা স্যালুটো বাংলাদেশ প্রাইস ২০২৪: Yamaha একটি জাপানিজ মাল্টিন্যাশনাল মোটরসাইকেল প্রস্তুতকারক। যেসময় মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড আছে বাজারে, তখন থেকেই ইয়ামাহা একটি খুবই পরিচিত নাম। এখানে ১২৫ সিসি সেগমেন্টে ইয়ামাহা স্যালুটো অন্যতম সুন্দর একটি বাইক। বর্তমানে ইয়ামাহা স্যালুটো একটি স্ট্যান্ডার্ড কমিউটার বাইক। এটি খুব স্মার্ট ও এলিগেন্ট লাগে বাইকটিকে। বাইকটির বডি ডিজাইন অত্যন্ত আকর্ষণীয়, যা বাইকটিকে প্রিমিয়াম এবং এলেগ্যান্ট মুখে প্রদর্শন করে।

Yamaha Saluto গাড়িটিতে সংযুক্ত আছে ১২৫ সিসি পাওয়ারফুল ৪-স্ট্রোক ইঞ্জিন, টুইন ভাল্ভ, এসওএইচসি ইঞ্জিন যা সিঙ্গেল সিলিন্ডার এবং এয়ার কুলড। ইঞ্জিনটি ৮.২ বিএইচপি @ ৭০০০ আরপিএম ম্যাক্স পাওয়ার প্রস্তুত করতে সক্ষম এবং এর পাশাপাশি বাইকটি ১০.১ নিউটন মিটার @ ৪৫০০ আরপিএম ম্যাক্স টর্ক উৎপন্ন করতে পারে। মোটরসাইকেলটির পাওয়ার ডেলিভারি খুব ভালো, তবে এই সেগমেন্টের অন্যান্য বাইকের তুলনায় এর টর্ক উৎপন্নের ক্ষমতা কিছুটা কম।

  • ইয়ামাহা সেলুটু বাইকটির ইঞ্জিনের টপ স্পীড ১০০ কিমি/ঘণ্টা এবং এর মাইলেজ ৬০ কিমি/লিটার। বাইকটির টপ স্পীড মাঝেমধ্যে, তবে মাইলেজ খুব ভালো।
  • Yamaha Saluto ১২৫ সিসি বাইকটিতে আরও রয়েছে ৪ স্পীড গিয়ারবক্স। স্মুথ ট্রান্সমিশন নিশ্চিত করার জন্য এতে সংযুক্ত করা হয়েছে ওয়েট মাল্টি-প্লেট টাইপ ক্লাচ।
  • ইয়ামাহা এই বাইকটির সামনের চাকায় সিঙ্গেল ডিস্ক ব্রেক এবং পেছনের চাকায় ড্রাম ব্রেক সহ আছে। বাইকটির ডিস্ক-ড্রাম ব্রেক সেটআপ খুব ভালো ফিডব্যাক দেয়।
  • এছাড়াও বাইকটির সামনের দিকে হাইড্রোলিক টেলিস্কোপিক ফর্ক সাসপেনশন এবং পেছনের দিকে স
  • স্প্রিং লোডেড হাইড্রোলিক, সুইং আর্ম টাইপ রিয়ার সাসপেনশন রয়েছে। বাইকটির উভয় সাসপেনশনের রেসপন্স খুব ভালো, যা ফলে ১২৫ সিসি বাইকটি উঁচু-নিচু, ভাঙ্গা এবং সমস্ত ধরণের রাস্তায় রাইড করতে অনেক সুবিধাজনক। এর পাশাপাশি পিলিয়নের জন্যও এটি অনেক আরামদায়ক রাইড সরবরাহ করে।
  • ১২৫ সিসি বাইকটির ফুয়েল ট্যাঙ্ক খুব ছোট, যা ৭.৬ লিটার ফুয়েল ধারণ ক্ষমতা আছে।
  • সব মিলিয়ে বাইকটির বডির দৈর্ঘ্য, প্রস্থ এবং উচ্চতা খুব ব্যালেন্সড। ইয়ামাহার বাইকটির ওভারঅল ওজন ১১৩ কেজি। এর পাশাপাশি গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স ১৮০ মিমি এবং হুইলবেস ১২৬৫ মিমি।
  • ইয়ামাহা ১২৫ সিসি সেগমেন্টের ইয়ামাহা স্যালুটো বাইকটি বিভিন্ন রঙে উপলব্ধ। কালার অপশনগুলি আছে আর্মাডা ব্লু, ম্যাট গ্রীন, স্পার্কি ক্যান।
  • Bajaj Discover 125 cc Price in Bangladesh
ইয়ামাহা স্যালুটো ১২৫ সিসি দাম ২০২৩

ইয়ামাহা স্যালুটো ১২৫ সিসি গাড়ির বডি ডিজাইন:

  • ইয়ামাহা সালুটো ১২৫ সিসি একটি প্রিমিয়াম কোয়ালিটির স্ট্যান্ডার্ড কমিউটার বাইক। এই বাইকটি দেখতে বেশ স্মার্ট এবং স্পোর্টি ভাব ধারণ করে। এর বডি ডিজাইন এবং গ্রাফিক্স অত্যন্ত আকর্ষণীয়, যা এটির অর্থনৈতিক সেগমেন্টে একটি অনুভূতি দেয়। অন্যান্য কমিউটার বাইকের তুলনায় ইয়ামাহা সালুটো ১২৫ সিসি একটু বড় মাপের। এর দৈর্ঘ্য ২০৩৫ মিমি, প্রস্থ ৭২০ মিমি, উচ্চতা ১০৯০ মিমি। ডায়মন্ড ফ্রেম টাইপ চেসিস এবং গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স ১৮০ মিমি, যা এটিকে যেকোনো রাস্তায় চলার জন্য উপযোগী করে। তারা ১২৬৫ মিমি হুইলবেসের সাথে বাইকটি ব্যালেন্সড রাখে। ইউনিকর্ন স্টাইলের পাইলট হেডল্যাম্প এবং হেডল্যাম্প কাউল সাথে যুক্ত হয়েছে। হেডল্যাম্পটি FZ সিরিজের হেডল্যাম্প থেকে অনুপ্রাণিত এবং হেডল্যাম্পে হালোজেন লাইট রয়েছে। শহরের রাস্তায় এটি ভালো উজ্জ্বলতা দেয়, তবে হাইওয়েতে এটি তাড়াতাড়ি জ্বলে না। এর টেইললাইট এবং সাইড ইন্ডিকেটরেও হালোজেন লাইট রয়েছে। বাইকের ইনফরমেশন ক্লাস্টারটি সম্পূর্ণ অ্যানালগ। স্পিডোমিটার, ওডোমিটার, ট্রিপ মিটার, ফুয়েল গেজ, টার্ন সিগনাল ইন্ডিকেটর, হেডল্যাম্প ইন্ডিকেটর ইত্যাদি সবই এখানে রয়েছে।বাইকের ফুয়েল ট্যাঙ্ক অনেক ছোট। এর ফুয়েল ধারণ ক্ষমতা 7.6 লিটার, যা অন্য কমিউটার বাইকের তুলনায় কম। ইয়ামাহা সালুটো ১২৫ এর সিট বেশ লম্বা এবং চওড়া। এর সিট হাইট 805 মিমি, যা কিছুটা উঁচু রাইডারের জন্য কঠিন হতে পারে। তবে, মাঝারি থেকে উঁচু রাইডারের জন্য এটি পারফেক্ট। এছাড়াও, সিটের শেষে গ্র্যাব রেল আছে, যা পিলিয়নকে ব্যালেন্স রাখতে সাহায্য করবে। এর ওভারঅল ওজন 113 কেজি, যা এই সেগমেন্টের অন্যান্য বাইকের তুলনায় কম। 125 সিসি সেগমেন্টের ইয়ামাহা সালুটো বর্তমানে আর্মাডা ব্লু, ম্যাট গ্রীন, স্পার্কি ক্যান এই তিনটি আকর্ষণীয় কালারে উপলব্ধ।

ইয়ামাহা স্যালুটো ১২৫ সিসি গাড়ির ইঞ্জিন:

  • ইয়ামাহা স্যালুটো বাইকটিতে ১২৫ সিসির পাওয়ার ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। এই ইঞ্জিনটি ৪ স্ট্রোক, টুইন ভাল্ভ, এসওএইচসি যার সিঙ্গেল সিলিন্ডার এবং এয়ার কুল্ড সিস্টেম ব্যবহার করে। এই ইঞ্জিন সরবরাহ করতে সক্ষম হয় ৮.২ বিএইচপি পাওয়ার আপ @ ৭০০০ আরপিএম ম্যাক্সিমাম তথা প্রতি মিনিটে অপেক্ষাকৃত ৭০০০ সিলিন্ডার মোটর ভুল্টেজ এবং একই সময়ে বাইকটি প্রতি মিনিটে ৪৫০০ আরপিএম টর্ক প্রদান করতে সক্ষম। এই বাইকের পাওয়ার ডেলিভারি ভালো, তবে টর্ক উৎপন্নের ক্ষমতা কিছুটা কম। ১২৫ সিসি বাইকটি প্রতি ঘণ্টায় ১০০ কিমি টপ স্পিড প্রদান করতে সক্ষম এবং প্রতি লিটারে ৬০ কিমি মাইলেজ দেওয়ার ক্ষমতা রেখেছে। এই বাইকের মাইলেজ সত্যিই ভালো এবং ফুয়েল এফিশিয়েন্সিও অত্যন্ত ভালো। ওয়েট মাল্টি-প্লেট ক্লাচ এবং ৪ স্পিড গিয়ারবক্স সংযুক্ত করে বাইকটিকে স্মুথ ট্রান্সমিশনে সাহায্য করে। বাইকটিতে ইলেক্ট্রিক এবং কিক-স্টার্ট দুই অপশনই রয়েছে বাইকটি চালানোর জন্য। এই বাইকের ইঞ্জিনে আরও সংযুক্ত আছে ৫২.৪ মিমি সাইজের বোর এবং ৫৭.৯ মিমি সাইজের স্ট্রোক।

ইয়ামাহা স্যালুটো ১২৫সিসির ব্রেকিং সিস্টেম:

  • ইয়ামাহা স্যালুটো ১২৫ এই বাইকটির অনেক নোটওয়ার্দি ফিচার রয়েছে। এটির ব্রেকিং সিস্টেম একটা দারুন ফিডব্যাক দেয়, যা দিয়ে রাইডার সমস্যার সামনে প্রতিরোধ করতে পারে। বাইকটির সামনের চাকায় ২৫০ মিমি সিঙ্গেল ডিস্ক ব্রেক আছে, আর পিছনে ড্রাম ব্রেক। ডিস্ক-ড্রাম ব্রেক সেটআপ অনেক ভালো পারফরমেন্স দেয়, সমুদ্রের মতো চলা-ফিরায় রাইডারের নিয়ন্ত্রণ বজায় রাখে। ১২৫ সিসি এ গাড়িটির টায়ারের সাইজও কাজের মধ্যে বেশ ভালোভাবে নির্বাচিত হয়েছে। সামনে ৮০/১০০ -১৮ ৪৭ পি সাইজের টায়ার আছে, আর পেছনে ৮০/১০০ -১৮ ৫৪ পি সাইজের। উভয় চাকায় ছয়-স্পোক ম্যাট ব্ল্যাক ফিনিশড রিম দেখতে অনেক আকর্ষণীয়।তবে, এই বাইকের টায়ার অন্যান্য বাইকের তুলনায় চিকন, কিন্তু সেগুলো সমান ভালো ফিডব্যাক দেয়। সমস্যার সম্মুখীন যৌদ্ধম্য বারতে এই বাইকটি সেরে রাখতে সাহায্য করতে পারে।

Yamaha Saluto 125 সিসি গাড়ির সাসপেনশন

ইয়ামাহা স্যালুটো ১২৫ সিসির এই বাইকের হাইড্রোলিক টেলিস্কোপিক ফর্ক সাসপেনশন রয়েছে এবং পেছনে স্প্রিং লোডেড, হাইড্রোলিক সুইং আর্ম ধরনের রিয়ার সাসপেনশন দেওয়া আছে। এই দুটি সাসপেনশনের ফিডব্যাক অনেক ভালো বলে মনে হয়। বিশেষত, এই ১২৫ সিসি বাইকটির সামনের সাসপেনশনটি অত্যন্ত সুস্থ এবং এটা যে কোনো ধরণের রাস্তায় রাইডারের জন্য অত্যন্ত সুবিধাজনক। এছাড়াও, পিলিয়নের সাসপেনশনের ফিডব্যাক খুব ভালো তার ফলে রাইডিং এক্সপেরিয়েন্স অনেক উপভোগজনক হয়।

আপনি কি আপনার ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের জন্য ভাল আইডিয়া চান তবে ইউকিগার এ যান।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *